8.3 C
New York
Sunday, July 12, 2020
Home Blog Page 3

সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে যুবলীগ নেতা বাবুল হোসেনের শোক

0

মোল্লা তানিয়া ইসলাম তমাঃ

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ্যাডঃ সাহারা খাতুন এম পির মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, রাজধানীর তুরাগের নয়ানগর এলাকার কৃতিসন্তান, যুবলীগের কর্মী বান্ধব নেতা ও শিক্ষানুরাগী মোঃ বাবুল হোসেন ।

বৃহস্পতিবার ( ৯ জুলাই ) রাত সাড়ে ১১টায় সাহারা খাতুন থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের একটি হাসপাতালে মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর । এক শোক বার্তায় যুবলীগ নেতা বাবুল হোসেন বলেন, সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে দেশ একজন সৎ ও নিষ্ঠাবান রাজনীতিবিদকে হারালো ।

এই ক্ষতি পূরণীয় নয়। তিনি শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান এবং বলেন, প্রার্থনা করছি যাতে এ শোক সবাই কাটিয়ে উঠতে পারে । উল্লেখ্য, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য সাহারা খাতুন কিডনি ও শ্বাসতন্ত্রের জটিলতায় ভুগছিলেন । গত সোমবার এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে নেওয়া হয় । সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন।

সুবর্নবাংলা-১০ জুলাই ২০২০

সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে তুরাগ থানা রাজনৈতিক মহলের শোক

0

মোল্লা তানিয়া ইসলাম তমাঃ

আওয়ামীলীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য এ্যাডঃ সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে পৃথক পৃথক শোকবার্তায় মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন, ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানার বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন ।

তুরাগ থানা আওয়ামীলীগের শোক: তুরাগ থানা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন, ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বীর- মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আবুল হাসিম ( চেয়ারম্যান ) ও সহ সভাপতি বীর- মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আব্দুল বারিক মেম্বর । তুরাগ থানা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে মরহুমার বিহেী আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয় ।

তুরাগ থানা ছাত্রলীগের শোক: ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে সাবেক স্বরাষ্ট্র এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন, তুরাগ থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ শফিকুল ইসলাম শফিক ও সাধারণ সম্পাক মোঃ আরিফ হাসান । তুরাগ থানা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয়

তুরাগ থানা যুবলীগের শোক: ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা আওয়ামী- যুবলীগের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং সাবেক ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন, তুরাগ থানা আওয়ামী- যুবলীগের আহ্বায়ক নিত্য চন্দ্র ঘোষ ও যুগ্ন আহ্বায়ক মোঃ নাসির উদ্দিন নাসিম ।

তারা বলেন, সাহারা খাতুন ছিলেন কল্যাণমূলক রাজনীতির অগ্রূত, একজন পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ ও নীতি আদর্শের প্রতীক । দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে তিনি ছিলেন সর্বজন স্বীকৃত এক জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব । তিনি আজীবন সততা ও ন্যায়-নিষ্ঠার সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর আর্শ প্রতিষ্ঠায় কাজ করে গেছেন । এ সময় তুরাগ থানা যুবলীগের পক্ষ থেকে মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয় ।

তুরাগ থানা স্বেচ্ছাসেবকলীগের শোকঃ ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা আওয়ামী- স্বেচ্ছাসেবক লীগের পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এমপির মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন, তুরাগ থানা আওয়ামী- স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আলহাজ মোঃ সাকেুর রহমান সাদেক ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহীন হোসেন ।

এক শোকবার্তায় তারা মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন । শোকবার্তায় আরও বলেন, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন বঙ্গবন্ধুর চেতনাকে বুকে ধারণ করে সততা, নিষ্ঠা ও দক্ষতার সাথে আজীবন দেশ ও মানুষের সেবা করে গেছেন । বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দু:সময়ে তিনি দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ অবান রেখেছেন। দলীয় নেতাকর্মীসহ গণমানুষের জন্য তার অবান চির অক্ষয় হয়ে থাকবে ।

দেশের প্রথম নারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের জীবন ও কর্ম সবার জন্য এক অনুসরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে । তার মৃত্যুতে জাতির অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল ।


তুরাগ থানা জাতীয় শ্রমিকলীগের শোকঃ ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা জাতীয় শ্রমিকলীগের পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন, তুরাগ থানা জাতীয় শ্রমিকলীগের সভাপতি আলহাজ্ব তৌকির হাসান ইকবাল ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ সোলেমান ওসমান ।

শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে তারা বলেন, এ্যাডঃ সাহারা খাতুন ছিলেন জননেত্রী শেখ হাসিনার ভ্যানগার্ড। দলের প্রতি বিশ্বস্ততার দৃষ্টান্ত গডে দেশের প্রথম নারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে চিরনি ইতিহাসের পাতায় লেখা রবে তার নাম। বিদায় প্রিয় সাহারা আপা । শোক ও শ্রদ্ধা।’ তুরাগ থানা কৃষকলীগের শোকঃ ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা কৃষকলীগের পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন,তুরাগ থানা কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ সাজেদুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক এস এম রিপন । তুরাগ থানা কৃষকলীগের পক্ষ থেকে এক শোকবার্তায় মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয় ।

এ্যাডঃ সাহারা খাতুন কিডনি ও শ্বাসতন্ত্রের জটিলতায় ভুগছিলেন। গত সোমবার এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ব্যাংককের বামর“নগ্রাদ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) স্থনীয় সময় রাত ১২টা ২৬ মিনিটে ইন্তেকাল করেন ।

জ্বর, অ্যালার্জিসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে অসুস্থ অবস্থায় গত ২ জুন সাহারা খাতুন ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হন। এখানে তার অবস্থার অবনতি হলে গত ১৯ জুন সকালে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয় । এরপর অবস্থার উন্নতি হলে তাকে গত ২২ জুন দুপুরে আইসিইউ থেকে এইচডিইউতে (হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিট) স্থানান্তর করা হয়। পরে ২৬ জুন সকালে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে আবারও তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয় ।

সাহারা খাতুন ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীরায়িত্ব পান। এরপর তিনি ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়ীত্ব পালন করেন। তিনি ঢাকা-১৮ সংসীয় আসনে পরপর তিনবার নির্বাচিত হন । সাহারা খাতুন ১৯৪৩ সালের ১ মার্চ ঢাকার কুর্মিটোলায় জন্মগ্রহণ করেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি অবিবাহিত ছিলেন ।

সুবর্নবাংলা-১০ জুলাই ২০২০

ভালুকায় ধর্ষণের ভিডিও প্রকাশের অভিযোগে গ্রেফতার-২

0

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি-


ময়মনসিংহের ভালুকায় ক্বওমী মাদরাসার ৫ম শ্রেণির এক ছাত্রী পুন:রায় শারীরিক মিলনে রাজী না হওয়ায় পূর্বের ধর্ষণকালে করা ভিডিও প্রকাশ করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনাটি উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের পাড়াগাঁও গৌরীপুর গ্রামের। ওই ঘটনায় বৃহষ্পতিবার (০৯ জুলাই) বিকেলে ভালুকা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ওই ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে মামলাটি করেন মামলায়,ওই গ্রামের জবান মুন্সীর ছেলে মারুফ (১৭) ও ফজলুল হকের ছেলে আতিকুল ইসলামকে (২১) আসামী করা হয়েছে। ভালুকা মডেল থানা পুলিশ অভিযোক্ত মারুফ ও আতিকুল ইসলাম কে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরন করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়,পাড়াগাঁও গৌরীপুর গ্রামের জবান মুন্সীর ছেলে মারুফ স্থানীয় ক্বওমী মাদ্রাসায় ৫ম শ্রেণিতে পড়–য়া ওই ছাত্রীকে মাদরাসায় আসা যাওয়ার পথে কু- প্রস্তাব করে উক্ত্যাক্তসহ নানা ভাবে হুমকী দিয়ে আসছিল।

এ অবস্থায় গত ১৫এপ্রিল ছাত্রীটিকে বাড়িতে একা পেয়ে মারুফ তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ওই সময় মেয়েটি ডাকচিৎকার শুরু করলে মারুফ পালিয়ে যায়।

এদিকে, ওই ঘটনার সূত্র ধরে আতিকুল ইসলাম ওই ছাত্রীকে তার সাথে মিলিত হওয়ার প্রস্তাব দেয় এবং অন্যথায় সে মারুফের সাথে ঘটনা প্রকাশ করে দেওয়ার হুমকী দিয়ে। পরে গত ২৮ মে আতিকুল মেয়েটিকে জোরপুর্বক নিজের ঘরে নিয়ে যায়। এ সময় মারুফ ওই ঘরে অবস্থান করছিল।

পরে, ওরা দু’জন পর্যায়ক্রমে মেয়েটিকে জোরপুর্বক ধর্ষণ ও ধর্ষণের চিত্র মোবাইলে ধারণ করে। পরবর্তীতে, তারা আগের ধর্ষণকালের ভিডিও মেয়েটি দেখিয়ে তারা আবারো ওই মেয়েটির মিলিত হওয়ার প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। কিন্তু, মেয়েটি রাজী না হওয়ায় তারা ওই ভিডিও টি একাধিক ব্যাক্তির কাছে প্রকাশ করে দেয়।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন এর নিদের্শে ইন্সপেক্টর (দতন্ত) আবুল কালাম আজাদ, ইন্সপেক্টর অপারেশন মেহেদি হাসান ও এস,আই ইকবাল হোসেন অভিযান চালিয়ে মারুফ ও আতিকুল ইসলাম কে গ্রেফতার করেছেন।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় একটি মামলা রুজু হয়েছে ও ২আসামি কে গ্রেফতার করে শুক্রবার আদালতে প্রেরন করা হয়েছে। ভিকটিমকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফরেনসিক বিভাগে পাঠানো হয়েছে।

সুবর্নবাংলা-১০ জুলাই ২০২০

নাসিম থেকে সাহারা : করোনাকালে চার নেতা হারাল আ.লীগ

0

স্টাফ রির্পোটারঃ-

অল্প কয়েক দিনের ব্যবধানে আওয়ামী লীগের চার ডাকসাইটে নেতার মৃত্যু হলো। সর্বশেষ বুধবার ব্যাংককে স্থানীয় সময় রাত ১২টা ২৬ মিনিটে মারা গেলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন।

এর আগে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম, আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য, সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন আহমদ কামরান মৃত্যুবরণ করেন। এই চার নেতা তাদের কর্মের মাধ্যমে নিজ নিজ এলাকা এবং জাতীয়ভাবে সবার কাছে পরিচিত। কয়েক দিনের মধ্যে চার নেতার মৃত্যুতে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

জ্বর, অ্যালার্জিসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে অসুস্থ অবস্থায় গত ২ জুন ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হন সাহারা খাতুন। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে গত ১৯ জুন সকালে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। এরপর অবস্থার উন্নতি হলে তাকে গত ২২ জুন দুপুরে আইসিইউ থেকে এইচডিইউতে (হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিট) স্থানান্তর করা হয়। পরে ২৬ জুন সকালে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে আবারও তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়।

গত সোমবার (৬ জুলাই) এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনকে। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) বাংলাদেশ সময় রাত ১১টা ২৫ মিনিটে তিনি বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।

এর আগে গত ১৩ জুন বেলা ১১টার দিকে বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম রাজধানীর শ্যামলীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর তার করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর হঠাৎ করে মস্তিকে রক্ষক্ষরণ হলে তাক্ষণিকভাবে তার সার্জারি করা হয়। ৮ দিন মৃতুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

মোহাম্মদ নাসিম বর্তমান সরকারের খাদ্য মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি। তিনি আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য। এছাড়া আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের মুখপাত্রও তিনি। ২০১৪ সালের নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগ সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান মোহাম্মদ নাসিম।

একই দিনে মৃত্যুবরণ করেন আওয়ামী লীগের আরেক কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য, দলের সাবেক ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আবদুল্লাহ। ১৩ জুন রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয়। তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। তিনিও করোনা পজেটিভ ছিলেন।

শেখ আবদুল্লাহ ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব লাভ করেন। রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালনে ব্যস্ততার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ৭ মে তার নির্বাচনী এলাকার (টুঙ্গিপাড়া-কোটালীপাড়া) উন্নয়নে তাকে প্রতিনিধির দায়িত্ব দেন। শেখ মো. আবদুল্লাহ ১৯৪৫ সালের ৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জ জেলার মধুমতী নদীর তীরবর্তী কেকানিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

এদিকে আওয়ামী লীগের অপর কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন আহমদ কামরান গত ১৫ জুন মৃত্যুবরণ করেন। গত ৫ জুন করোনা আক্রান্ত হয়ে বাসায় আইসোলেশনে ছিলেন কামরান। শারীরিক অবস্থার কিছুটা অবনতি হলে ৬ জুন তাকে সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তি করা হয়। অবস্থার আরও অবনতি হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ৭ জুন সন্ধ্যায় তাকে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতাল থেকে বিমানবাহিনীর এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকায় নেয়া হয়।

এরপর দিন ৮ জুন তাকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্লাজমা থেরাপি দেয়া হয়। প্লাজমা থেরাপির পর কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠছিলেন তিনি। তবে তাকে সিএমএইচের আইসিইউতে রেখে অক্সিজেন সাপোর্টে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয় এবং তিনি মারা যান।

সুবর্ণবাংলা/এমএমইচকে

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন আর নেই

0

মোল্লা তানিয়া ইসলাম তমাঃ

থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এম পি আর নেই ।

বৃহস্পতিবার ব্যাংকক স্থানীয় সময় রাত ১২টা ২৬ মিনিটে মারা যান তিনি । সাহারা খাতুনের ব্যক্তিগত সহকারী মজিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ।

তিনি জানান, ব্যাংকক স্থানীয় সময় রাত ১২টা ২৬ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত ১১টা ২৫ মিনিট) বামুনগ্রাদ হাসপাতালে অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন ইন্তেকাল করেন ।

এর আগে গত সোমবার থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনকে ।

জ্বর,অ্যালার্জিসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে অসুস্থ অবস্থায় গত ২ জুন সাহারা খাতুন ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হন।এখানে তার অবস্থার অবনতি হলে গত ১৯ জুন সকালে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয় ।

এরপর অবস্থার উন্নতি হলে তাকে গত ২২ জুন দুপুরে আইসিইউ থেকে এইচডিইউতে (হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিট) স্থানান্তর করা হয়। পরে ২৬ জুন সকালে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে আবারও তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়।

সুবর্নবাংলা-১০ জুলাই ২০২০

জাল করোনা সনদ ৫ অক্টোবর পর্যন্ত ইতালিতে নিষিদ্ধ বাংলাদেশি ফ্লাইট

0

স্টাফ রির্পোটারঃ

করোনাভাইরাস পরীক্ষার জাল কাগজপত্র থাকার অভিযোগে ইতালি সরকার বাংলাদেশ থেকে যাওয়া সব ফ্লাইটের ওপর নিষেধাজ্ঞা আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়িয়েছে। এর ফলে গত প্রায় চার মাস ধরে বাংলাদেশে আটকা পরা কয়েক হাজার বাংলাদেশি, যারা ইতালিতে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন, তারা বিপাকে পরলেন।

গত ৬ জুলাই ইতালির রোমে অবতরণ করা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইটে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক যাত্রীর কোভিড-১৯ শনাক্ত হওয়ার পর ৭ জুলাই এক সপ্তাহের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল দেশটি।

করোনা শনাক্ত হওয়া ওই যাত্রীদের কাছে ‘কোভিড-১৯ নেগেটিভ’ এবং ‘ভ্রমণের জন্য নিরাপদ’ মর্মে কাগজপত্র ছিল।

৮ জুলাই ১৫১ বাংলাদেশি যাত্রীকে দেশটিতে প্রবেশ করতে দেয়নি ইতালি। বাংলাদেশ থেকে কাতার এয়ারওয়েজের একটি ট্রানজিট ফ্লাইটে ইতালি যাওয়া ওই যাত্রীদের পুনরায় ঢাকায় ফেরত পাঠানো হয়।

আজ বৃহস্পতিবার কাতার এয়ারওয়েজের দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘ইতালির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে বাংলাদেশ থেকে ইতালিগামী সব ফ্লাইট/যাত্রী নিষিদ্ধ করা হয়েছে।’

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘৮ জুলাই থেকে শুরু করে ৫ অক্টোবর পর্যন্ত যে কোনো দেশের নাগরিক কিংবা যে কোনো দেশ হয়ে বাংলাদেশ থেকে যাওয়া কোনো ফ্লাইট ইতালিতে অবতরণের অনুমতি পাবে না।’

হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সূত্রে জানা যায়, ইতালি থেকে ফেরত পাঠানো ১৫১ বাংলাদেশি যাত্রী আজ রাতের মধ্যেই ঢাকায় ফিরতে পারেন।

গতকাল কাতার এয়ারওয়েজের এক কর্মকর্তা জানান, তারা ইতালি সরকারের এই সিদ্ধান্ত জানতেন না যে বাংলাদেশ থেকে যাওয়া কোনো যাত্রীকে ইতালিতে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না।

১৫১ বাংলাদেশি যাত্রী কাতারের দোহা হয়ে ঢাকা থেকে রোমের ফিয়ামিকিনো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাচ্ছিলেন।

৭ জুলাই বিমানের বিশেষ ফ্লাইটে কোভিড-১৯ নেগেটিভ সনদ থাকার পরও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক যাত্রীর করোনা শনাক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ থেকে ছেড়ে যাওয়া কোনো ফ্লাইট অবতরণের অনুমতি না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইতালি।

সম্প্রতি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স বাংলাদেশ থেকে ইতালি যাওয়ার জন্য কয়েকটি চার্টার্ড ফ্লাইট পরিচালনা করে। ইতালির বিমানবন্দরে অবতরণের পর এই ফ্লাইটগুলোর বেশ কয়েকজন যাত্রী কোভিড-১৯ সংক্রমিত বলে শনাক্ত হন।

১৬ জুন আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করার পর বাংলাদেশ সরকার কাতার এয়ারলাইন্সসহ সীমিত সংখ্যক বিদেশি এয়ারলাইন্সকে ঢাকা থেকে ট্রানজিট ফ্লাইট পরিচালনা করার অনুমতি দেয়।

এর আগে জুনে বাংলাদেশ থেকে জাপানে বিশেষ ফ্লাইট চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দেয় দেশটি। বাংলাদেশ থেকে যাওয়া যাত্রীদের মধ্যে চার জনের কোভিড-১৯ পজিটিভ আসার পর তাদের সেখানেই কোয়ারেন্টিনে রাখা হয় এবং এই নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।

সুবর্ণবাংলা/এমএমইচকে

গৌরীপুরে জুয়া, মাদক ও অবৈধ অস্ত্রধারীদের গ্রেফতারের দাবীতে ফেইজবুকে স্ট্যাটাস

0

শ ম বিপ্লব-

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ভাংনামারী ইউনিয়নে জুয়া,মাদক ও অবৈধ অস্ত্রধারীদের গ্রেফতারের দাবীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজবুকে স্ট্যাটাস দেন ইউপি চেয়ারম্যান মফিজুনুর খোকা।

স্ট্যাটাসে উল্লেখ, ওসি সাহেবের দৃষ্টি আকর্ষন চরাঞ্চল ভাংনামারী ইউনিয়নের প্রচুর অবৈধ অস্ত্র অনেকের হাতে। এখানে মাদক ইয়াবা বিক্রি হয় প্রকাশ্য। ৩টি জুয়ার বোর্ড বন্ধ করা যাচ্ছে না। এবার জুয়ারো নয় জুয়া খেলা যারা চালায় তাদের গ্রেফতার করুন। অবৈধ অস্ত্রগুলো উদ্ধার এবং ইয়াবা ব্যবসায়ীদের নির্মল চাই। ইউনিয়ন পরিষদ সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে আছে। চাই আইনি শাসন।

গৌরীপুরে জুয়া, মাদক ও অবৈধ অস্ত্রধারীদের গ্রেফতারের দাবীতে ফেইজবুকে স্ট্যাটাস দেখে সরেজমিনে গেলে নাম প্রকাশে অনিশ্চুক কয়েকজন জানান, ইউনিয়নের উজান কাশিয়াচর ইউপি সদস্য গিয়াস উদ্দিনের নেতৃত্বে ভাটিপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে হারুনের নেতৃত্বে ও খোদাবক্সপুরে আমিন ও হামিনের নেতৃত্বে একটি জুয়ার আসর চলছে। পাশাপাশি প্রকাশ্য বিক্রি হচ্ছে মরন নেশা ইয়াবা ট্যাবলেট।

পূর্বে ডাকাতের আবাস ভূমি ছিল ভাংনামীর ইউনিয়ন। ডাকাতদের ব্যবহৃত অস্ত্র এখন চলে গেছে রাজনীতিক নেতা কর্মীদের হাতে। যুব সমাজেকে রক্ষার্থে এলাকাবাসী ও অভিভাবকরা আইন প্রয়োগকারী সংস্থার দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করছে।

এ বিষয়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক ও ফজলে মাসুদ সত্যতা স্বীকার করে বলেন বেশ কয়েকটি জুয়ার আসর চলছে বলে প্রতিদিন শুনতে পারছি। পাশাপাশি মাদকের কারনে ইউনিয়নের যুব সমাজ আজ ধ্বংসে পথে। যে ভাবে মাদকের দ্রব্য ছড়িয়ে পড়ছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে আগামী কিছু দিন পরে ভাংনামারী ইউনিয়নে সুস্থ্য কোন যুবক খোজে পাওয়া যাবে না।

ব্যাপারে গৌরীপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ বোরহান উদ্দিন বলেন, প্রতিনিয়ত ভাংনামারী ইউনিয়নে আমাদের অভিযান চলছে। ইতিমধ্যে বেশ কয়েক জন জুয়ারী ও মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমাদের এ অভিযান চলমান থাকবে। আর কার কাছে অস্ত্র আছে আমরা তথ্য পেলে উদ্ধারসহ তাকে গ্রেফতার করবো।

সুবর্নবাংলা-৯ জুলাই ২০২০

তুরাগে কৃষকলীগ নেতার উপর হামলা

0

মোল্লা তানিয়া ইসলাম তমাঃ

রাজধানীর তুরাগে কৃষকলীগ নেতা মোঃ নাসির উদ্দিন নাসিরের উপর সন্ত্রাসী কায়দায় হামলার ঘটনা ঘটেছে ।

এই ব্যাপারে কৃষকলীগ নেতা বাদি হয়ে হামলাকারিদের বিরুদ্ধে তুরাগ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার ( ৯ জুলাই ) সকাল ১১টার দিকে তুরাগ থানার অন্তর্গত ঢাকা উত্তর সিটির ৫৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের অফিস সংলগ্ন ( কামারপাড়া ) রাস্তার পাশে হামলাকারী জৈনক নাগর আলী ওরফে ময়লা নাগরের একটি প্লাস্টিক পণ্য সামগ্রীর দোকান রয়েছে ।

উক্ত দোকানের মালামাল রাস্তার একটি অংশ দখল করে রাখায় রাস্তায় চলাচলকারী যানবাহন ও পথচারীদের চলাচলে বিঘ্ন ঘটে । এমতাবস্থায় ৫৪নং ওয়ার্ড কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ নাসির উদ্দিন নাসির মটর সাইকেল যোগে ঐ রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তায় চলাচলকারী যানবাহন ও পথচারীদের চলাচলে সমস্যা হওয়ার কারনে দোকান মালিক নাগর আলী ওরফে ময়লা নাগরকে রাস্তা থেকে মালামাল সরিয়ে নিতে অনুরোধ করে চলে যায় ।

প্রায় ঘণ্টা খানেক পরে ফিরার পথে দেখতে পায় রাস্তা থেকে দোকানের মালামাল সরানো হয়নি । তখন নাসির রাস্তা থেকে মালামাল না সরানোর কারন জানতে চাইলে দোকান মালিক নাগর ক্ষিপ্ত হইয়া নাসিরকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে । নাসির এর প্রতিবাদ করলে দোকান মালিক নাগরের বখাটে ছেলে আলাউদ্দিন ( ২২ ) একটি চাকু নিয়ে অতর্কিত ভাবে ঝাপিয়ে পড়ে নাসিরের উপর এবং এলোপাথাড়ি ভাবে নাসিরকে চাকু দ্বারা আঘাত করার চেষ্টা করে ।

নাসির বাঁচার জন্য চাকুর আঘাত ফিরানোর চেষ্টা করলে তার দুই হাত মারাত্মক জখম হয় । এদিক দিয়ে নাগর আলীও নাসিরকে কিল ঘুষি মারতে থাকে । এক পর্যায় নাসির চাকু সহ আলাউদ্দিনকে ঝাপটে ধরলে আলাউদ্দিনের হাতে থাকা চাকুতে তার পেট সামান্য কেটে যায় । এমতাবস্থায় পথচারীরা নাসিরকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য টঙ্গী সরকারী হাসপাতালে পাঠায় ।

প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কৃষকলীগ নেতা মোঃ নাসির উদ্দিন নাসির বাদি হয়ে তুরাগ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন । এদিকে দোকান মালিক নাগর আলী ওরফে ময়লা নাগরও নাসিরের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ এনে থানায় একটি পাল্টা অভিযোগ দায়ের করেন ।

এই ব্যাপারে জানতে অভিযুক্ত নাগর আলীর ব্যবহৃত মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে প্রতিবেদককে তিনি বলেন, আমি আমার আইওর সাথে কথা বলে আপনাকে জানাবো বলে ফোন কেটে দেন । এই ব্যাপারে জানতে তুরাগ থানায় যোগাযোগ করা হলে থানার ইন্সপেক্টর ( তদন্ত ) মোহাম্মদ সফিউল্লাহ বলেন, উক্ত ঘটনায় থানায় পৃথক ২টি অভিযোগ দায়ের হয়েছে । ঘটনাস্থল পরিদর্শনে পুলিশ পাঠানো হয়েছে । তদন্ত সাপেক্ষে সর্বাত্মক আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে ।

এদিকে কৃষকলীগ নেতার উপর হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক মহল । তারা হামলাকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানান ।

সুবর্নবাংলা-৯ জুলাই ২০২০

করোনা ক্ষতিগ্রস্ত সুবিধা বঞ্চিত অসহায় দরিদ্র মানুষের মাঝে পৌরসভার চাল বিতরণ

0

ময়মনসিংহ ফুলপুর প্রতিনিধি) মোঃ কামরুল ইসলাম খান

ময়মনসিংহের ফুলপুরে করোনা ভাইরাসের প্রভাবে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত অতিদরিদ্র, অসহায়, সুবিধাবঞ্চিত কর্মহীন মানুষের মাঝে ফুলপুর পৌরসভার চাল বিতরণ কার্যক্রম চলছে। এরই অংশ হিসেবে আজ বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) ফুলপুর পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের ৬শ অতিদরিদ্র, অসহায় সুবিধাবঞ্চিত কর্মহীন পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ১০ কেজি করে চাল বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে।

পৌরসভার চাল বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন নবাগত ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শীতেষ চন্দ্র সরকার।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ফুলপুর পৌরসভার মেয়র মোঃ আমিনুল হক, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ শফিকুল ইসলাম, পৌর সচিব আব্দুল মোতালেব, পৌরসভার প্যানেল মেয়র-২ শফিকুল ইসলাম, কাউন্সিলর, তোফাজ্জল হোসেন, লিজা আক্তার, হালিমা খাতুন, সাংবাদিক মোঃ খলিলুর রহমান, সেচ্ছাসেবক তাসফিক হক নাফিও, মাহমুদুল হাসান রাব্বিসহ কাউন্সিলরবৃন্দ।

সুবর্নবাংলা-৯ জুলাই ২০২০

জন দুর্ভোগ চরমে সংস্কারের অভাবে বেহাল দেওগাঁও গ্রামের রাস্তা

0

মো: আসাদুজ্জামান খান সোহাগআটপাড়া (নেত্রকোণা) প্রতিনিধি :

নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলার লুনেশ্বর ইউনিয়নের দেওগাঁও মাইজপাড়া গ্রামের রাস্তাটি দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে জন সাধারণের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করছে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য বিভিন্ন সময়ে সরকারি টাকা বরাদ্দ হলেও যথাযথ ভাবে কাজ না করায় এখন তা ব্যবহারের অনুপযোগীই রয়ে গেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, দেওগাঁও মাইজপাড়া রাস্তার মাঝখানে সাকু দিয়ে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা ও সাধারণ জনগণ অত্যন্ত ঝুকি নিয়ে উপজেলা সদরে আসা-যাওয়া করছেন। মাইজ পাড়া থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারী সাহেবের বাড়ী পর্যন্ত প্রায় ২ কিলোমিটা রাস্তাটির এই বেহাল দশা।

প্রতি বছরে ফসল কাটার মৌসুমে এই রাস্তা দিয়ে হাওর থেকে বিভিন্ন যানের মাধ্যমে কৃষকগণ তাদের উৎপাদিত ফসল ঘরে তোলেন। এছাড়া বিগত সময় থেকে এই গ্রামের কোথায় অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটলে রাস্তাটির বেহাল দশার কারণে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি প্রবেশ করতে পারে না। এতে অনেক পরিবারই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: আব্দুল বারী জানান, সংস্কারের অভাবে রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। যদি আমি মৃত্যুবরণ করি একজন বীরমুুক্তিযোদ্ধা হিসাবে প্রশাসন আমার বাড়ীতে আসতে কষ্টদায়ক হবে। স্থানীয় ইউ.পি চেয়ারম্যান মো: মাহফুজুল ইসলাম খান শিরিন বলেন, রাস্তাটি সংস্কারের জন্য কর্তৃপক্ষ দরপত্র আহবান করবেন। এতে দ্রæত সময়ের মধ্যে আমার এলাকাবাসী সীমাহীন দূর্ভোগ থেকে লাগব হবে।

সুবর্নবাংলা-৯ জুলাই ২০২০